বিজ্ঞাপন দিন

প্রকাশিত হয়েছেঃ আগস্ট ২১, ২০২১ সময়ঃ ৯:৪২ অপরাহ্ণ

গাজীপুর থেকে নিজস্ব প্রতিবেদক,২১ আগস্টঃ
গাজীপুর মহানগরের ৩৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলমগীর মাস্টারের ছোট বোন আসমা বেগমের বিরুদ্ধে গরু চুরির অভিযোগে গাছা থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ চোরাই গরুসহ আসমা বেগমের তিন সহযোগীকে গ্রেফতার করে থানায় নেয়ার পথে সংঘবদ্ধ গরুচোর চক্র পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে গরুসহ তিন চোরকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে।  এসময় গাছা থানার এসআই সাইফুল আহত হন। হামলাকারীরা তাকে টেনে হেচড়ে ইউনিফর্ম (পুলিশের পোশাক) ছিড়ে ফেলে। শনিবার গ্রেফতারকৃত তিন চোরকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।
গরুর মালিক আলাউদ্দিন জানান, গত বৃহস্পতিবার সকালে তিনি স্থানীয় বগারটেক মাঠে বাছুরসহ একটি গাভী বেঁধে রেখে যান। দুপুর ১২টায় তিনি মাঠে গিয়ে বাছুরসহ গাভীটি না পেয়ে আশপাশে খোঁজাখুজি শুরু করেন। অবশেষে না পেয়ে পাশের একটি বাড়ির সিসি টিভির ফুটেজ দেখে একজন নারীকে গরুটি নিয়ে যেতে দেখেন। পরে এই ভিডিও ফুটেজের সূত্র ধরে শুক্রবার  গরুচোরকে সনাক্ত করে পুলিশে খবর দেন। পুলিশ ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলমগীর মাস্টারের সহোদর বোন আসমা বেগমের বাড়িতে শুক্রবার রাতে অভিযান চালিয়ে তিন চোরকে গ্রেফতার করে। পুলিশের অভিযানের সময় আসমা বেগম পালিয়ে যায়। পরে গ্রেফতারকৃতদের দেয়া তথ্যে  স্থানীয় কুনিয়া পাছরের সুদের কারবারি সাফায়েত হোসেন বাবুর বাড়ি থেকে বাছুরসহ গাভীটি উদ্ধার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত তিন চোর পুলিশকে জানায়, তারা নিয়মিত গরু চুরি করে আসমা বেগমের বাড়িতে এনে রাখেন এবং গরু বিক্রির টাকা আসমা বেগমসহ তারা ভাগ করে নেন। আলোচিত গরুটি সীমা আক্তার শীমু নামের তাদের এক সদস্যার মাধ্যমে তারা চুরি করেন। পরে আসমার বাড়িতে আনার পর তিনি ( আসমা) বাছুরসহ গাভীটি ৩৮ হাজার টাকায় সুদের কারবারি সাফায়েত হোসেন বাবুর কাছে বিক্রি করেন।
এদিকে এব্যাপারে গাছা থানার ওসি ইসমাইল হোসেন বলেন, বাছুরসহ গাভীটির মূল্য লক্ষাধিক টাকা হবে। চোরেরা যা মাত্র ৩৮ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেয়। এঘটনায় ওয়ার্ড কাউন্সিলরের বোন আসমা বেগম, চোরাই গরুর ক্রেতা সাফায়েত হোসেন বাবু, গ্রেফতারকৃত তিন চোর সীমা আক্তার শীমু, জনাব আলী ও নুরুল ইসলামসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৩-৪ জনের নামে গাছা থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশের ওপর হামালার বিষয়ে তিনি বলেন, সামান্য হাতাহাতি ও ধস্তাধস্তি হয়েছে। হামলার শিকার এসআই সাইফুল ইসলাম জানান, হামলাকারীরা তার ইউনিফর্মের কলার ছিড়ে ফেলেছে।

প্রকাশক ও সম্পাদক

আসাদুজ্জামান (ফজলু)

হাউজ নং: ২০, ফ্ল্যাট নং: বি২, রোড নং: ০৭

সেকশন: ১২, উত্তরা, ঢাকা – ১২৩০

মোবাইল: ০১৭১৮-১৯২৬৮৫, ০১৭৬১-৫৮২৩৩৮

ইমেইল: contact@digontabarta.com